বাংলাদেশ | শনিবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৮ | ১ পৌষ,১৪২৫

বিনোদন

10-05-2018 12:22:00 PM

বোকামার্কা কমার্শিয়াল ছবিতে কাজ করি না

newsImg

বলিউডে অন্য ধারার অভিনেত্রী রিচা চাড্ডা। মাসান, গ্যাংস অব ওয়াসেপুর, ফুকরে রিটার্নস, রামলীলা, সরবজিত-এর মতো একাধিক সফল ছবির সহযোদ্ধা তিনি। সদ্য মুক্তি পেল রিচা অভিনীত ছবি দাস দেব। ছবিটি পরিচালনা করেছেন সুধীর মিশ্র। রিচার সঙ্গে কথা বলেছেন প্রথম আলোর মুম্বাই প্রতিনিধি দেবারতি ভট্টাচার্য

প্রশ্ন: ‘সরবজিত’ ছবির পরিচালক ওমাংগ কুমার আপনার খুব প্রশংসা করেছিলেন। উনি বলেছেন, আপনি চোখ দিয়ে অভিনয় করেন—

রিচা চাড্ডা: (একটু রেগে) তাই নাকি! আর তার জন্যই কি ওমাংগ সরবজিত ছবিতে আমার সব সংলাপ কেটে বাদ দিয়ে দেন। উনি হয়তো ভেবেছিলেন চোখ দিয়ে আমাকে অভিনয় করাবেন।

প্রশ্ন: সুধীর মিশ্রর ‘দাস দেব’ ছবিতে আপনি এ যুগের ‘পারু’। কেমন লাগল এ প্রজন্মের ‘পারু’কে?

রিচা চাড্ডা: এ যুগে দাঁড়িয়ে এ রকম ‘পারু’র সমাজে প্রয়োজন। এই পারু বুদ্ধিমতী, শক্তিশালী ও স্বাধীনচেতা। ওই সময়ের পারুর মতো এই পারু হাতে প্রদীপ নিয়ে দৌড়ায় না। বন্ধ দরজার পেছনে চোখের জল ফেলে না। দাস দেব-এর পারু আধুনিকমনস্ক, দৃঢ়চেতা।

প্রশ্ন: শুনেছি, এই ছবির আরেক অভিনেত্রী অদিতি রাও হায়দারির সঙ্গে আপনার নাকি মনোমালিন্য হয়েছিল। উনি আপনার অভিনীত চরিত্র ‘পারু’ করতে চেয়েছিলেন—

রিচা চাড্ডা: না না, আমাদের মধ্যে কোনো মনোমালিন্য হয়নি। হ্যাঁ, এ কথা ঠিক অদিতি পারু করতে চেয়েছিল। কিন্তু স্যার (সুধীর মিশ্র) অদিতিকে পরিষ্কার জানিয়ে দেন যে সে চন্দ্রমুখী করবে। আর ছবিতে তার অভিনীত চরিত্রটির যথেষ্ট গুরুত্ব থাকবে। আমরা একসঙ্গে বসে সব আলোচনা করি। তাই মন–কষাকষির কোনো অবকাশ ছিল না। তবে আমি এই ছবিতে পরে আসি। শুরুর দিকে স্যার ভেবেছিলেন অদিতিকে দিয়ে পারু করাবেন আর চন্দ্রমুখী হবেন চিত্রাঙ্গদা। আমি এই প্রজেক্টে আসার পর এই বদল হয়।

প্রশ্ন: কিছুদিন আগে আপনার দুই প্রাক্তন সহ–অভিনেতা ভিকি কৌশল আর অভয় দেওল আপনার কথা বলছিলেন—

রিচা চাড্ডা: ও, তাই নাকি! হ্যাঁ, ভিকির ছবি রাজি আসছে। আমি ওকে ইনস্টাগ্রামে শুভেচ্ছা জানিয়েছি। এরা প্রত্যেকে আমার খুব ভালো বন্ধু।

প্রশ্ন: আপনাকে তথাকথিত কমার্শিয়াল ছবিতে অপেক্ষাকৃত কম দেখা যায়। এর কারণ কী?

রিচা চাড্ডা: রামলীলা, ফুকরে রিটার্নস-এর মতো কমার্শিয়াল ছবিতে কাজ করেছি। তবে আমি বোকামার্কা কমার্শিয়াল ছবিতে একদমই কাজ করি না। একটা দৃশ্যের সঙ্গে তার পরবর্তী দৃশ্যের কোনো মিল নেই। আমার অদ্ভুত লাগে এই ধরনের ছবি (সশব্দে হেসে)।

প্রশ্ন: এখন বলিউডে ‘পিংক’, ‘লিপস্টিক আন্ডার মাই বোরকা’ ছবির মতো নারীপ্রধান ছবি হচ্ছে। কী রকম লাগছে বলিউডে এই বদল?

রিচা চাড্ডা: হ্যাঁ, হচ্ছে বৈকি। তবে এই ছবির সংখ্যা হাতে গোনা। খুব কম ছবিতে নায়িকা নায়ক। আর এখনো সাধারণ মানুষ নারীপ্রধান ছবি মেনে নিতে পারেন না। তাই সোনম কাপুর, কারিনার ছবি ভিরে দ্য ওয়েডিং সম্পর্কে অনেকে উল্টোপাল্টা মন্তব্য করছেন। কই চার ছেলেকে নিয়ে যখন ছবি করা হয়, তখন কেউ তো কোনো মন্তব্য করেন না।

প্রশ্ন: সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সোনম কাপুর বলেছিলেন যে বলিউডে ছেলেমেয়ের মধ্যে ভেদাভেদ আছে। এই বিষয়ে আপনি কি সহমত পোষণ করেন?

রিচা চাড্ডা: হ্যাঁ, ভীষণভাবে আছে। এক শ ভাগ আছে। ফুকরে রিটার্নস ছবিতে অনেক ছেলে। তখন কেউ বলেন না ওদের মধ্যে ‘ডগ ফাইট’ হয়েছে। কিন্তু দাস দেব ছবিতে দুজন নায়িকা আছেন বলে মিডিয়া বলছে, আমাদের মধ্যে নাকি ‘ক্যাট ফাইট’ হচ্ছে। আমি যখন কোনো সংবাদ সম্মেলনে যাই, আর আমার শেষ ছবি এক শ কোটি ব্যবসা করেছে, তখন কেউ বলেন না বড় স্টার কাস্ট আছে। আমি আবার যখন বড় নায়কের সঙ্গে মাত্র চারটি দৃশ্যে এবং দুটি গানের দৃশ্যে কাজ করি, তখন আমাকে বড় তারকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। কারণ, আমার পাশে বড় তারকা তখন থাকেন বলে। আর আমি যখন পুরোপুরি নিজের ক্ষমতাবলে একটা ছবি হিট করাই, তখন আর কেউ আমাকে বড় তারকা হিসেবে দেখেন না।

প্রশ্ন: আপনি ইন্ডাস্ট্রির বাইরে থেকে এসেছেন। আপনার জন্য কতটা মুশকিলের ছিল এই সফর?

রিচা চাড্ডা: ছিল বললে ভুল বলা হবে। এই মুশকিল এখনো একইভাবে বর্তমান। মুশকিলে ভরা আমাদের মতো অভিনেতাদের জীবন। কারণ, আমরা তারকার সন্তান নই। তাই আমাদের প্রতিটা মুহূর্তে সংঘর্ষ করতে হচ্ছে। দাস দেব-এর মতো ছবি রিলিজ করাতে এবং তার প্রচারণা করতে জীবন বেরিয়ে যাচ্ছে।

প্রশ্ন: সরোজ খানের ‘কাস্টিং কাউচ’ নিয়ে বক্তব্যে বলিউডে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গেছে। এই বিষয়ে আপনার কী মতামত?

রিচা চাড্ডা: সরোজ জি কখনোই বলেননি যে ‘কাস্টিং কাউচ’ ভালো জিনিস। উনি বলেছিলেন যে শুধু এই ইন্ডাস্ট্রির দিকে কেন এ বিষয় নিয়ে আঙুল তোলা হচ্ছে। দেখুন, এ ক্ষেত্রেও মিডিয়া কী রকম একপেশে। তারা ভালো করেই জানে যে পার্লামেন্টে বসা মানুষটি ধর্ষণ করেন। কিন্তু মিডিয়া তাঁদের প্রশ্ন না করে এই ইন্ডাস্ট্রিকে প্রশ্ন করে। আসলে সরোজ জির বক্তব্যকে মিডিয়া বিকৃত করছে।

প্রশ্ন: আপনাকে কখনো এই ধরনের পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়েছে?

রিচা চাড্ডা: আমার সামনে কেউ কোনো কুপ্রস্তাব রাখার সাহস পায়নি।

প্রশ্ন: এবার একটা ব্যক্তিগত প্রশ্ন করছি, আলী ফজল এবং আপনার সম্পর্কের সমীকরণটা কী?

রিচা চাড্ডা: ব্যক্তিগত প্রশ্নের উত্তর দিতে আমি একদম স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি না। তবে এটুকু আমি বলতে পারি, আলী আমার বয়ফ্রেন্ড। তবে আমরা কবে বিয়ে করব বা কী করব, এই বিষয়ে কিছু বলতে চাই না।

খবরটি সংগ্রহ করেনঃ- i-news24
এই খবরটি মোট ( 371 ) বার পড়া হয়েছে।
add

Share This With Your Friends