বাংলাদেশ | মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৬, ২০১৮ | ৩০ আশ্বিন,১৪২৫

আন্তরজাতিক রাজনীতি

13-12-2017 10:20:38 AM

কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে প্রথম সংবাদ সম্মেলনে রাহুল- দলকে শক্তিশালী করাই অগ্রাধিকার

newsImg

ভারতের কংগ্রেস পার্টির সভাপতি হিসেবে গত সোমবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথম সংবাদ সম্মেলন করলেন রাহুল গান্ধী। গুজরাটের আহমেদাবাদে গতকাল মঙ্গলবার এ সংবাদ সম্মেলনে তিনি রাজ্যটির চলমান বিধানসভার নির্বাচনে তাঁর দলের জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসের কথা জানান।
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির রাজ্য গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় ও শেষ দফার ভোট গ্রহণ সামনে রেখে প্রচারাভিযানের শেষ দিন ওই সংবাদ সম্মেলন করলেন রাহুল। বিধানসভার ১৮২ আসনের মধ্যে প্রথম দফায় ৮৯টির ভোট গ্রহণ করা হয় গত শনিবার। বিধানসভার গত নির্বাচনে এ ৮৯টি আসনের মধ্যে বিজেপি ৬৭টি ও কংগ্রেস ১৬টি আসনে জয়ী হয়। বাকি ৯৩টি আসনের ভোট গ্রহণ ১৪ ডিসেম্বর। ফল প্রকাশ ১৮ ডিসেম্বর।
মনি শংকর আয়ারের মন্তব্যকে ঘিরে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে রাহুল গান্ধী বলেন, তিনি তাঁর অবস্থান স্পষ্ট করেছেন। মনি শংকরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘কংগ্রেসের সভাপতি হিসেবে আমার অগ্রাধিকারের বিষয় হবে দলকে শক্তিশালী করা এবং গুজরাট নির্বাচনে আপনারা এটা দেখতে পাবেন।’
রাজনৈতিক আলাপ-আলোচনা, বক্তৃতা ‘কদর্য ও কুশ্রী’ হয়ে যাওয়ায় এতে পরিবর্তন আনার আগ্রহ ব্যক্ত করে রাহুল বলেন, বিজেপির নির্বাচনী প্রচারাভিযানের মনোযোগ বিরোধী দলকে ঘায়েল করার দিকে।
সংবাদ সম্মেলনে রাহুলকে তাঁর মন্দিরে যাওয়া প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে জবাবে তিনি পাল্টা প্রশ্ন করেন, ‘আমি কেন মন্দিরে যেতে পারব না? এটা বিজেপির বানানো গল্প যে আমি কেবল গুজরাটের মন্দিরে গেছি। কিন্তু প্রকৃত কথা হলো, আমি কেদারনাথ মন্দিরে গেছি। এটা কি গুজরাটে? এটা উত্তরাখণ্ডে।’
কংগ্রেস সভাপতি বলেন, ‘আমি যখনই কোনো মন্দিরে গিয়েছি, তখন গুজরাটের জনগণের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ, এখানকার আরও সমৃদ্ধির জন্য প্রার্থনা করেছি। কোনো মন্দিরে যাওয়া কি অন্যায়? সাধারণত আমরা জনসভা করে থাকি। কিন্তু বর্তমানে আমরা যাত্রা করছি। এর ধারাবাহিকতায় আমি বিভিন্ন মন্দিরে গিয়েছি।’
গুজরাট নিয়ে কংগ্রেসের ভিশন জানতে চাইলে রাহুল বলেন, গুজরাটের উন্নয়ন হয়েছে একপেশে। আসছে নির্বাচনে আমরা গুজরাটে জয়ী হওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। রাজ্যে ৯০ শতাংশ স্কুল-কলেজ বেসরকারীকরণ করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী এখন আর দুর্নীতি নিয়ে কথা বলেন না। আমরা বিজেপির একপেশে উন্নয়নের বদলে সুষম উন্নয়ন করব। বিজেপি সরকারের অযৌক্তিক অর্থনৈতিক নীতি গুজরাটকে ধ্বংস করে দিয়েছে। গুজরাটে আমরা কখনো একতরফা সিদ্ধান্ত নেব না।’

খবরটি সংগ্রহ করেনঃ- Masudur
এই খবরটি মোট ( 429 ) বার পড়া হয়েছে।
add

Share This With Your Friends